রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৩৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম
রামপাল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দোয়া ও সমর্থন চাইলেন পারভেজ বেপারী মুন্সীগঞ্জের সিপাহীপাড়া থেকে চোরাই মোটরসাইকেলসহ ১ ভুয়া সাংবাদিক আটক  গজারিয়ায় নুরু মাল গংদের সম্পত্তিতে জোর করে বালু ভরাট লৌহজংয়ে মাদ্রাসার শিক্ষকের কাছে বলাৎকারের শিকার ছাত্র শ্রীনগরে জাতীয় মাছের পোনা অবমুক্ত করণ দিঘীরপাড় পোস্ট অফিসের ৫০ বছর বয়েসী পুরানো কালি কড়ই গাছের নিলাম  গজারিয়ায় বন্ধুর বাবাকে মারধরের প্রতিবাদে শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে জখম বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ কন্যা শেখ রেহানা’র ৬৬তম জন্মবার্ষিকী  উপলক্ষ্যে জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে দোয়া ও আলোচনা সভা গজারিয়ায় ভগ্নিপতির ছুরিকাঘাতে শ্যালক আহত গজারিয়ায় শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখরিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

গর্ভকালীন সময়ে কেন ক্যালসিয়াম খাবেন?

ডাঃ মোঃ আল-রাব্বনী: ক্যালসিয়ামের অভাব জনিত সমস্যার কারনে গর্ভবতী মা ও শিশু দু-জনেই জটিলতার শিকার হতে পারে।শিশুর স্বাভাবিক বৃদ্ধি এবং মায়ের সুস্থতার জন্যই মাকে ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার ও চিকিৎসাকের পরামর্শ মেনে কৃত্রিম ক্যালসিয়াম(ট্যাবলেট) গ্রহন করতে হবে।

ক্যালসিয়াম শিশুর হাড়ের দ্রুত বিকাশ এবং দাঁত মজবুত করে।এছাড়া পেশির নড়াচড়া, হার্ট এবং স্নায়ুর বিকাশে সহায়তা করে।যেহেতু মায়ের শরীর থেকে শিশু প্রয়োজনীয় ভিটামিন এবং মিনারেলস সংগ্রহ করে থাকে।

সেহেতু মা যদি পর্যাপ্ত পরিমাণে ক্যালসিয়াম গ্রহন না করে তাহলে পরবর্তীতে মা হাড়ের ক্ষয় রোগে আক্রান্ত হবে।উন্নত বিশ্বে রোগ নির্নয়ের পদ্ধতির উপরে ভিত্তি করে দেখা যায় – ২% থেকে ৮% পুরুষ এবং ৯% থেকে ৩৮ % নারী হাড়ের ক্ষয় জনিত রোগে ভোগে।এছাড়াও মায়ের দাতের যত্নেও ক্যালসিয়ামের ভূমিকা রয়েছে।

ক্যালসিয়ামের গুরুত্ব আরও স্পষ্ট হয় গর্ভকালীন সময়ের তৃতীয় ধাপে(3rd timester),যখন মায়ের কাছ থেকে শিশু প্রতি দিন ২৫০ থেকে ৩৫০ মিলিগ্রাম হাড় বিকাশের রসদ গ্রহন করে। আমেরিকান কলেজের ধাত্রিবিদ্যা এবং প্রসূতিবিদ্যা বিশেষজ্ঞদের মতে ১৯ বছর বা, ততোর্ধ্বে বয়সের মহিলারা গর্ভকালীন সময়ে, আগে এবং পরে প্রতিদিন ১০০০ মিলিগ্রাম এবং ১৮ বছরে বয়সের মহিলারা ১৩০০ মিলিগ্রাম ক্যালসিয়াম গ্রহন করবেন। গর্ভকালীন জটিলতা গুলোর মধ্যে প্রি-একলামশিয়া অন্যতম বড় একটি জটিলতা। যে জটিলতার কারণে মা এবং শিশু দু-জনেরই মৃত্যু ঝুকি থাকে।সঠিক মাত্রা ক্যালসিয়াম গ্রহন প্রি-একলামশিয়া এবং উচ্চ রক্তচাপের মত জটিলতাও এড়ানো সম্ভব। গর্ভধারণের আগে, গর্ভকালীন সময়ে এবং পরে মহিলাদের বেশি বেশি ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার ও চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে কৃত্রিম ক্যালসিয়াম(ট্যাবলেট) গ্রহন করতে হবে। ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার গুলো হল- দুধ ও দুগ্ধজাত খাদ্য,গাড় সবুজ শাক-সবজি শুটকি মাছ,ছোট মাছ,গুড়,ছোলা ইত্যাদি। এ সকল খাবারে প্রচুর পরিমানে ক্যালসিয়াম রয়েছে।যা গর্ভবতী মায়ের গর্ভকালীন ক্যালসিয়ামের ঘাটতি পূরণে যথেষ্ট ভূমিকা পালন করে।



ফেজবুক পেইজে লাইক দিন